সালতামামি ২০১৬ঃ 'অপ্রতিদ্বন্দ্বী শাকিব এবং আরো বেশি প্রত্যয়ী' - Dhallywood24

Dhallywood24

www.dhallywood2.net A Bangladeshi Entertainment /News Media Portal.

Breaking

Post Top Ad

Dec 20, 2016

সালতামামি ২০১৬ঃ 'অপ্রতিদ্বন্দ্বী শাকিব এবং আরো বেশি প্রত্যয়ী'

ওসমান সোহাগ |অতিথি লেখক
বর্তমানে বাংলাদেশ চলচিত্রের একমাত্র সুপারস্টার শাকিব খান এই কথা অস্বীকার করার জো নেই..। প্রায় এক যুগের মত তিনি একাই ঢালিউড শাসন করতেছেন...বরাবরের মত এই বছর ও তার ব্যতিক্রম ঘটেনি..। এই বছরে তার সফলতা বলতে গেলে শতভাগ..। পুরো বছর জুড়ে আট টি সিনেমা দিয়ে পর্দা কাপিয়েছেন এবং আলোচিত ছিলেন সকল প্রকার গণমাধ্যমে।
রাজা৪২০:উত্তম আকাশ এর "রাজা৪২০" দিয়ে বছর টা শুরু হয়েছিলো..। গতানুগতিক গল্পের সিনেমা হলেও শাকিব খানের অভিনয় দিয়ে পুরো সিনেমা টেনে নেন..এবং প্রযোজক লাভের মুখ দেখেন....কিন্তু ভক্ত সমালোচক শাকিব খান কে এখন এই ধারার মুভিতে আর দেখতে চায় না...তারপর ও তিনি সফল ছিলেন।

পূর্ণদৈর্ঘ্য প্রেম কাহিনী-২:বছরের প্রথম থেকে তুমল আলোচিত ছিলো...কারন এর প্রথম কিস্তিতে জয়ার আহসান এর সাথে শাকিব খান কে দর্শক ভালোভাবে গ্রহন করার কারনে এটার প্রতিও বাড়তি প্রত্যাশা ছিলো সবার..মুক্তির পর সুপারহিট ব্যবসা ও করে...যদিও সাফি উদ্দিন সাফির দুর্বল নির্মাণের কারনে কিছুটা সমালোচনার মধ্যে পড়ে সিনেমাটি...তবে গান গুলো যথেষ্ট গ্রহণযোগ্যতা পায়।
শিকারি:২০১৬ সালের সবচাইতে বেশি ব্যবসাসফল মুভির তকমা পায় "শিকারি"..এই মুভিটি ঢালিউড কে অনেকটাই নাড়া দেয় ব্যবসায়ীক দিক থেকে..পাশাপাশি শাকিব খানের স্লিম ফিগার এবং ভিন্ন লুক,নতুন হেয়ার স্টাইল সব মিলিয়ে ভক্তহৃদয়ে ব্যাপক প্রভাব বিস্তার করে "শিকারি"....এবং সর্বমহলেও প্রশংসিত হয় "শিকারি"...সবাই শাকিব খানের কাছে শিকারির মত মুভি আশা করে...। শাকিব খান এখানেও সফল।
রানা পাগলা দ্যা মেন্টাল: বছরের অন্যতম আলোচিত মুভির একটি..আলোচনার মূলে শাকিব খান...এই সিনেমায় খান সাহেবের ভিন্ন লুক একটা ক্রেজ সৃষ্টি করেছিলো...পাশাপাশি নুসরাত ইমরোজ তিশার সাথে জুটিবদ্ধ হওয়া নিয়ে তুমল আলোচিত ছিলো গণমাধ্যম....একটু ভিন্ন গল্পের সিনেমায় শাকিব খান ভালো অভিনয় করলেও মেকিং এ পরিচালক এর দুর্বলতা চোখে পড়ে..তবুও শাকিব তিশার রোমাঞ্চ মনে রাখার মত..ভক্তদল তিশার সাথে পুনরায় সিনেমা দেখার অপেক্ষায়...ঈদের সিনেমা হিসেবে মেন্টাল ভালো বলা চলে।

সম্রাট দ্যা কিং ইজ হেয়ার: গত রোজার ঈদের অন্যতম সিনেমা এটা...সিনেমার নামের মতই স্টাইলিশ নির্মাণ ছিলো "সম্রাট দ্যা কিং ইজ হেয়ার"... এই সিনেমাতে পুরোপুরিভাবে ভিন্ন লুকে ছিলেন শাকিব খান...সিনেমার গান গুলো শ্রোতাপ্রিয়তা পায় এবং খান সাহেবের অভিনয় প্রশংসিত হয়...শাকিব খান এখানেও সফল। ভক্তরাও এই ধরনের সিনেমা তার কাছে আশা করে....পরিচালক ও এর দ্বিতীয় কিস্তি নির্মাণের ঘোষণা দিয়েছেন... "সম্রাট-২"  হবে শীঘ্রই।
বসগিরি:ঈদুল আযহার সবচেয়ে আলোচিত সিনেমা "বসগিরি"। এখানে শাকিব খানের ভিন্ন লুক এবং এই সিনেমার হেয়ারকাট তুমল জনপ্রিয়তা পায়..আর সিনেমায় শাকিব খানের হাত ধরে অভিষেক হয় সুন্দরী নায়িকা নবাগতা শবনম বুবলির..সুপারহিট ব্যবসার পাশাপাশি এই সিনেমার গানগুলোও তুমল জনপ্রিয়তা পায়। শাকিব খান এখানেও সফল এবং শাকিব বুবলি জুটিও।

শুটার: ঈদুল আযহার অন্যতম সিনেমা...এখানে শাকিব খানের ভিন্ন লুকের কারনে আলোচিত ছিলো...কিন্তু মুক্তির পর পরিচালক রাজু চৌধুরীর দুর্বল নির্মাণের কারনে সমালোচিত হয়...ঈদের সিনেমা হিসেবে ব্যবসা করলেও এই সিনেমা মন ভরাতে পারেনি সয়ং শাকিব খানের ভক্ত মহলেও। শাকিব খানের কাছে ভক্তদের চাহিদা এখন অপরিসীম...ভক্তদের দাবি "শুটার" নয় "শিকারি" মানের সিনেমা চাই।
ধুমকেতু: বছরের শেষ সিনেমা হিসেবে মুক্তি পাইছে শাকিব খানের জন্য...২০১৪ তে মহরত হয়ে বিভিন্ন ঝামেলায় ২০১৬ এর শেষে মুক্তি হয় ধুমকেতুর..এবং কি এখনো সফলতার সাথে দেশের প্রায় ৯৬+ হলে চলতেছে...কিন্তু গল্পে অমিল,দুর্বলতা এবং শাকিবের গেটাফ কন্টিনিউয়াস করতে পারেনি "ধুমকেতু" তে..। ভক্তদের এই নিয়ে অভিযোগ পরিচালকের প্রতি বেশি..তবুও সবমিলিয়ে "ধুমকেতু" হিটের কাতারে যাচ্ছে একমাত্র শাকিব খান থাকার কারনে...কিন্তু ২০১৬ তে শাকিব খানের কাছে এই ধরনের গল্পের মুভি দর্শক আশা করেনা....খান সাহেবের ও ব্যাপার টা বোঝা উচিৎ।
তবে এই বছর একটা ব্যাপার লক্ষণীয় তাহলো শাকিব খানের ০৮টি সিনেমাতেই ভিন্ন ভিন্নভাবে উপস্থিত হয়েছেন এবং নায়িকা নির্বাচনের ক্ষেত্রেও ভিন্নতা চোখে পড়ে..এই বছর ৮জন নায়িকার বিপরীতে হাজির হয়েছেন শাকিব খান...। আর আগামী বছর তো আরো বেশি সচেতন হয়ে আসছেন খান সাহেব...এবং তার ভালো সিনেমা দিয়ে ঢালিউডের সিনেমা বাজার চাংগা হবে সেই প্রত্যাশায়...ভালো থাকুক সবার প্রিয় শাকিব খান।

Pages