‘রাজা ৪২০’ দেখার পর-রহমান মতি - Dhallywood24

Dhallywood24

www.dhallywood2.net A Bangladeshi Entertainment /News Media Portal.

Breaking

Post Top Ad

Feb 6, 2016

‘রাজা ৪২০’ দেখার পর-রহমান মতি

রহমান মতি| বাংলা চলচ্চিত্র প্রেমী
 
শাকিব খান ও মানসিক প্রস্তুতি :শাকিব খান সম্পর্কে কিছু বলতে গেলে আগে থেকে মানসিক প্রস্তুতি নিতে হয়।যেমন ধরুন-১.যারা বলে শাকিব অভিনয় পারে না তাদের জন্য ভাবতে হয়.২.যারা ভাবে শাকিবের জন্যই দেশের ইন্ডাস্ট্রির সবচেয়ে বড় ক্ষতি হয়েছে তাদের জন্য ভাবতে হয়।.৩.যারা শাকিবকে সিনেমাহল বন্ধ হবার কারণ বলে মনে করে তাদের কথা মাথায় রাখতে হয়। ৪.যারা শাকিব বিরোধী কথায় বা আচরণে তাদের ক্ষোভের মুখে পড়ার জন্য ভয়ে ভয়ে থাকতে হয়।

এ প্রস্তুতি গুলো নিয়েই বলছি শাকিব খানের জন্যই এখনকার ইন্ডাস্ট্রি যতটুকু টিকে আছে সেটা গত বছর পাঁচেক আগে শাকিবের একাই মৃতপ্রায় হওয়া ইন্ডাস্ট্রিকে টেনে আনার ফলেই হয়েছে।যার কারণে আজকের আরেফিন শুভ, বাপ্পি, সায়মন,মাহী, আঁচল, মীম, ফারিয়ারা কাজ করতে পারছে।ভিত্তিটা শাকিব খানের ঐ পরিশ্রমের ফলেই হয়েছে।আর যারা বলে শাকিব খান অভিনয় পারে না তারা ভুল বলে পুরোটাই।তাকে ক্যারেক্টার দিন সে অভিনয় করে দেখাবে।আজকের ‘রাজা ৪২০’ও তাই বলে।যে ছেলে ‘সুভা, আমার স্বপ্ন তুমি, প্রাণের মানুষ, সমাধি, মায়ের মর্যাদা, ডাক্তারবাড়ি’ এসব টাফ কাজ করতে পারে সে অভিনয় পারে না এটা মানার কোনো যুক্তিই নেই।যারা আগের নায়ক ছিল তারা তাদের সময় সেরা ছিল আর এখন সবদিক থেকে পারফেক্ট নায়ক শাকিবই।শাকিবের সিনেমা কেন ব্যবসাসফল হয় :শাকিবের সিনেমা কেন ব্যবসাসফল হয় এর উত্তরে কথা একটাই, বাণিজ্যিক সিনেমার যে মসলা দরকার সে মসলাই থাকে শাকিবের সিনেমায়।আনন্দ, গান, হৈ হুল্লোড়, নাচ, হাসি, কান্না সবই থাকে।বাণিজ্যিক সিনেমাকে টানতে এর চেয়ে বেশি কিছু লাগে না।‘রাজা ৪২০’ এ এগুলোর সবই পেলাম।বিশেষ করে কমেডিটা দুর্দান্ত করেছে।যতক্ষণ সিনেমাহলে দর্শক ছিল সবাই অনেক হেসেছে।আমারও হাসতে হাসতে পেটব্যথা অবস্থা।এখন তো সিনেমা দেখার আগে লোকে টাকা উসুল হবে কিনা সে চিন্তাটা করে।তাদের বলছি আপনার টাকা উসুল হবে এ সিনেমায়।মজা করতে চান, হাসতে চান তো এ সিনেমা আপনাকে সেটা দেবে।শাকিবের বেশ পাল্টানোর সাথে কমেডি করা বা কামরূপ কামাখ্যার কথিত বাবা সাজার অভিনয়, অপু বিশ্বাসের সাথে প্রেমের অভিনয়, মধ্যরাতে ভিলেনদের শায়েস্তা করা বা নায়িকার জন্য চোখের জল ফেলা সব ক্যারেক্টারে সে পারফেক্ট।তার এক্সপ্রেশন দেখে মনে হয় চোখের সামনেই সব করে দেখাচ্ছে।


 ওমর সানীর ঝলক :এ সিনেমায় ওমর সানী ফাটিয়ে অভিনয় করেছে।ভোলাভালা টাইপের ক্যারেক্টারে জমিয়ে অভিনয় করেছে।দর্শক সবচেয়ে বেশি হেসেছে তার অভিনয় দেখেই।শাকিবের বড়ভাইয়ের ক্যারেক্টারে উনি খুবই স্বতঃস্ফূর্ত।ফাইটের সময়, কান্নার সময় বা সিরিয়াস মুহূর্তেও তার কমেডি দর্শককে হাসিয়েছে।সামাজিক সচেতনতা :হাসির সিনেমাতেও সামাজিকভাবে সচেতনতা দেখানো যায়।আদম পাচার বা ভাগ্য বদলানোর লোভ দেখিয়ে লোক ঠকিয়ে প্রতারণা যারা করে সেই আদম ব্যবসায়ীদের বিরুদ্ধে গ্রামগণ্জের লোকদের প্রতিবাদী চেহারা দেখানো হয়েছে সিনেমায়।এ সমস্যা সমাজে চলমান।আমাদের সংস্কৃতির সিনেমা দেখা দরকার যেজন্য :যেীথ প্রযোজনার সিনেমাতে বাংলা+হিন্দির সংস্কৃতি মিশ্রভাবে দেখানো হয় যেটা আমাদের সংস্কৃতি নয়।‘রাজা ৪২০’এ গ্রামবাংলা ও শহর দুই দিক থেকে যে গল্প কমেডির স্বাদ দিচ্ছে সেটাই আমাদের সংস্কৃতি।তাই অনেক পথ খোলা থাকলেও আমাদের শেষ পর্যন্ত এই সংস্কৃতিতেই ফিরে আসতে হবে।শেকড় বলে কথা।সিনেমাটি আমার ভালো লেগেছে।বাণিজ্যিক সিনেমা যেভাবে ভালো লাগা দরকার সেভাবেই লেগেছে।আনন্দ পাবার জন্য সিনেমাটি দেখতে চাইলে অবশ্যই এ সিনেমা আনন্দ দেবে।আপনারা হলে গিয়ে দেখুন সিনেমাটি।আমার মনে হচ্ছে ‘রাজা ৪২০’ ব্যবসাসফল হবে.।

No comments:

Post a Comment

Pages